অবেলার সামান্য ইচ্ছা প্রকাশের আবদার-

11th November, 2023
269




সাময়িক সময়ের আত্মপ্রকাশঃ

কারোর কোনো কিছুতেই নির্ধারিত চিন্তাধারা রাখা সম্ভব না। কেউ কোনো বিষয়ের জন্য আগে থেকে যেই সিদ্ধান্ত নেবে- বিষয়টা সম্পাদনা হওয়া না পর্যন্ত সিদ্ধান্তের পরিবর্তন হতে থাকবে। চিন্তা মানুষকে সময়ের সাথে পুরো বদলে দেয়। এইজন্য ভালো-খারাপ প্রত্যেকটা বিষয়ের জন্যই সময় দেওয়া উচিত। কিন্তু সময়ের চিন্তাশক্তি সবসময় রাগের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা উচিত। কারন তখন কারোর মধ্যে বিবেচনা শক্তি দুর্বল থাকে। আর কোনো ভালো কাজের জন্য সেই কাজের মূহুর্তে সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত। এইসময়টাতে কোনো ব্যক্তির চিন্তাশক্তি খুব প্রখর থাকে। যা তাকে অল্প সময়ে যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করে।

মানুষের জীবনের একটা সাধারণ বিষয় হলো- কষ্ট ছাড়া যেকোনো কিছুর ফল ভোগ করা। যা অসম্ভব হলেও এই ধরনের মানসিকতা কাউকে হালকা অলসতা অনুভব করায় কিছু মূহুর্তে। কিন্তু এই চিন্তার পরিবর্তনে কেউ হয়তো প্রয়োজনের চেয়েও অতিরিক্ত পেতে পারে সময় থেকে। কিছু ক্ষেত্রে অনেকেই বলে থাকে মানুষ সাধারন/অসাধারন। বিষয়টা আসলে এরকম না। প্রত্যেকটা ব্যক্তিই তার নিজের মতো। হয়তো কেউ কাউকে অনুসরণ করে চলে। আবার কেউ হয়তো নিজের খেয়ালে চলতে পছন্দ করে। পার্থক্য হচ্ছে মানসিকতায়। যার কারনে প্রত্যেকেই তার নিজের মতো।

মানুষ ৪টা জিনিস থেকে সবসময় শিখতে থাকে- পরিবার, সমাজ, সময়, প্রকৃতি। পরিবার মানুষকে কারোর করুন অবস্থায় তার পাশে থাকা শেখায়, পরিস্থিতি যেমনই হোক না কেন। সমাজ তোমার ব্যবহার আর কাজের উপর বিচার বিশ্লেষণ করতে থাকবে। যা কাউকে সময়ের সাথে পূর্ণতা অর্জন শেখাবে। সময় কাউকে জীবনের মূল্য বোঝাতে থাকবে, যতক্ষণ না বোধশক্তির উদ্ভব হয়। আর প্রকৃতি প্রত্যেককে জীবনের শুরু থেকে শেখাতে থাকবে। কারন প্রত্যেকটা মানুষই প্রকৃতির উপর নির্ভরশীল। প্রকৃতি পুরো পৃথিবী জুড়ে মানুষকে আগলে রাখে। একটা ব্যক্তির অনুভবও পরিবর্তন হয় প্রকৃতির রূপ/আবহাওয়া পরিবর্তনে। প্রকৃতি কাউকে শুরু থেকে শেষ অবধি নিজের মাঝে জরিয়ে রাখে। যা প্রত্যেকের অনুভবে থাকার কারনে সবসময় অপ্রকাশ্যে থেকে যায়।

সাময়িক সময়ের কিছু আবদার হয়তো অর্থহীন হয়। কিন্তু বাস্তবতা লুকিয়ে কখনো কোন আবদার পূরণ করলেও তার সাময়িকীকরণ কাউকে সবসময় দ্বিধাগ্রস্ত করতে থাকে। কোনো কিছুর নির্দিষ্টতা যেমন কাউকে শৃঙ্খলা শেখায়। তেমনি দীর্ঘসময়ের না পাওয়া কিছু তাকে জীবনের প্রতি ঠিক ততটাই অনুগত করায়। যা তাকে ভোগানোর জায়গায় শেখাতে থাকে। জীবনের স্বার্থকতা পরিবারের প্রতি, সমাজের স্বার্থকতা শিক্ষালয়ে আর সৃষ্টিকর্তার স্বার্থকতা পরিচালনায়। যা পুরাতনে যোগ হলেও সবসময় অপরিবর্তিত থাকবে। পরিবর্তনশীল পৃথিবীর এই ধরনের অপরিবর্তিত বিষয়গুলো এখনো সবকিছুর ভারসাম্য বজায় রেখে চলেছে। যা কারোর সীমিত জীবনকেও অসীম চাওয়ায় বদ্ধ করে রাখে।

কোনো কিছুর নেতিবাচকতা একসময় ইতিবাচক প্রভাব বিস্তার করে অনেকের জীবনে। কারণ এই নেতিবাচকতাই কাউকে শক্ত হয়ে সময়ের সাথে সফলতা অর্জনে সহায়তা করে। যা তাকে সম্পূর্ণরূপে বদলে নতুন জীবন দান করে। তখন অসফলতার খাতায় সফলতার অধ্যায় তৈরি হতে থাকে। যা পৃথিবীর বুকে দৃষ্টান্ত রূপ স্থাপন করে।

রিলেটেড পোস্ট


উপেক্ষাকৃত চিন্তার পরিপ্রেক্ষিতে সাময়িক মূল্যায়ন পর্যালোচনা-
পড়া হয়েছে: ৭৮১ বার

সর্বোত্তম মূহুর্তের যেকোনো বিবেচনা মন থেকে আসে-
পড়া হয়েছে: ৩২৩ বার

প্রত্যেকের জীবনে সত্যতার তাৎপর্য কতটুকু-
পড়া হয়েছে: ২৬৬ বার

সময়ের সাথে বদলে যাওয়া মূহুর্তের অনুভব-
পড়া হয়েছে: ২৮৬ বার

প্রদত্ত সংবিধান নিয়ন্ত্রণে সামান্য পরিবর্তন শ্রেয়-
পড়া হয়েছে: ৩৪০ বার

জীবনের প্রথম জিনিস কখনই পরিবর্তন হয় না-
পড়া হয়েছে: ২৫৩ বার

ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ ব্যক্তি ছিঁড়ছে সম্পর্কের পাতা-
পড়া হয়েছে: ৩৮০ বার

ফেসবুক চালাতেও প্রতি মাসে দিতে হবে টাকা!
পড়া হয়েছে: ১০১ বার

মানবিক মূল্যবোধ মানুষের ভেতরের লক্ষণ নির্ধারণ করে থাকে-
পড়া হয়েছে: ৪০৮ বার

বিব্রতকর পরিস্থিতির অনাকাঙ্খিত চিন্তার প্রভাব-
পড়া হয়েছে: ২৫১ বার


আরো নিবন্ধন পড়ুন



????কিছু আরবি শব্দের বাংলা অর্থ : আসুন আমরা জেনে নি ???? Sunday, 07th January, 2024


 
১. #বিসমিল্লাহ (بِسْمِ اللّهِ)
বিসমিল্লাহ অর্থ: আল্লাহর নামে শুরু।
তাৎপর্য: আল্লাহর বারাকাহ ও নিরাপত্তা অর্জন।    

২. #আলহামদুলিল্লাহ (الْحَمْدُ لِلّٰهِ)
আলহামদুলিল্লাহ অর্থ: সকল প্রশংসা আল্লাহর।
তাৎপর্য: আল্লাহর প্রশংসা ও শুকরিয়া আদায় করা।        

৩. #সুবহানাল্লাহ (سُبْحَانَ اللّٰهِ)
সুবহানাল্লাহ অর্থ: আল্লাহ পবিত্র।
তাৎপর্য: মহান আল্লাহর পবিত্রতা ঘোষণা করা।       

৪. #আল্লাহু_আকবার (اللّٰهُ أَكْبَرُ) 
আল্লাহু আকবার অর্থ: আল্লাহ সবচেয়ে বড়।
তাৎপর্য: আল্লাহর বড়ত্ব ঘোষণা ও সবকিছুর উপরে আল্লাহকে স্থান দেয়া।       

৫. #লা_ইলাহা_ইল্লাল্লাহ (لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللّٰه)
লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ অর্থ: আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ (মাবুদ) নেই।   
তাৎপর্য: আল্লাহর এককত্ব ঘোষণা করা এবং তার সাথে অন্য কাউকে শরীক না করা।       

৬. #জাজাকাল্লাহু_খাইরান   
(ﺟَﺰَﺍﻙَ ﺍﻟﻠّٓﻪُ ﺧَﻴْﺮًﺍ)
জাযাকাল্লাহু খাইরান অর্থ: আল্লাহ আপনাকে উত্তম প্রতিদান দিন।       
তাৎপর্য: অন্যের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা।

৭. #মাশাআল্লাহ (ما شاء الله)
মাশাআল্লাহ অর্থ: আল্লাহ যেমন চেয়েছেন।
 তাৎপর্য: আল্লাহর প্রশংসা করা। 

৮. #ইনশাআল্লাহ (ان شاء الله)
ইনশাআল্লাহ অর্থ: যদি আল্লাহ চান।
তাৎপর্য: আল্লাহর উপর ভরসা কর। 

৯. #আস্তাগফিরুল্লাহ (ﺃﺳﺘﻐﻔﺮ ﺍﻟﻠﻪ)
আস্তাগফিরুল্লাহ অর্থ: আমি আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাই।
তাৎপর্য: আল্লাহর নিকট ক্ষমা চাওয়া ও তাওবাহ করা।  

১০.  #ফি_আমানিল্লাহ্ (في أمان الله)
ফি আমানিল্লাহ অর্থ: আল্লাহর নিরাপত্তায় সোপর্দ করলাম।
তাৎপর্য: আল্লাহর নিকট নিরাপত্তা চাওয়া, ভরসা করা।

১১. #নাউযুবিল্লাহ (نعوذ بالله)
নাউজুবিল্লাহ অর্থ: আল্লাহর কাছে এথেকে আশ্রয় চাই।
তাৎপর্য: মন্দ কিছু শুনলে কিংবা দেখলে এথেকে আশ্রয় প্রার্থনা করা।

১২. #লা_হাওলা_ওয়ালা_কুওয়াতা_ইল্লা_বিল্লাহ  
(لَا حَوْلَ وَلَا قُوَّةَ إِلَّا بِاللَّهِ)
অর্থ: আল্লাহর সাহায্য ও সহায়তা ব্যতীত আর কোন আশ্রয় ও সাহায্য নেই।
তাৎপর্য: আল্লাহর এককত্ব ও বড়ত্ব প্রকাশ।  

১৩. #ইন্নালিল্লাহি_ওয়া_ইন্না_ইলাইহি_র_জিউন 
(إِنَّا لِلّهِ وَإِنَّـا إِلَيْهِ رَاجِعونَ) 
অর্থ: নিশ্চয়ই আমরা মহান আল্লাহর জন্য এবং আমরা তার দিকেই ফিরে যাবো। 
তাৎপর্য: মৃত্যু ও পরকালের স্মরণ।

১৪. #সুবহানাল্লাহি_ওয়া_বিহামদিহি  
(سُبْحَانَ اللَّهِ وَبِحَمْدِه)
অর্থ: মহাপবিত্র আল্লাহ এবং সকল প্রশংসা তাঁর জন্য।
তাৎপর্য: আল্লাহর পবিত্রতা ও প্রশংসা ঘোষণা করা। 

১৫. #সুবহানাল্লাহিল_আযীম 
(سبحان الله العظيم)
অর্থ: মহপবিত্র আল্লাহ, যিনি মহান।
তাৎপর্য: আল্লাহর পবিত্রতা ও বড়ত্ব ঘোষণা।

 Alhamdulillah

হামাসের হামলায় ৯ আমেরিকান নিহত Thursday, 12th October, 2023

গত শনিবার ফিলিস্তিনি সশ্বস্ত্র গোষ্ঠি হামাসের রকেট হামলায় ইসরায়েলে নিহত ৮০০ ছাড়িয়েছে। নিহতের মধ্যে অন্তত ৯ জন আমেরিকার নাগরিক আছেন বলে জানিয়েছে  মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। নিহতের এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছে দেশটি। 

সোমবার আমেরিকার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার বলেন, ‘ওই অঞ্চলে হামাসের হামলায় আমাদের দেশের ৯ জন মারা গেছেন। এই তথ্য আমরা পেয়েছি। কোনো আমেরিকানকে জিম্মি করা হয়েছে কিনা, সেটিও দেখা হচ্ছে।’

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, হামাসের হামলায় ইসরায়েলে নিহতের সংখ্যা ৮০০ ছাড়িয়েছে। পাল্টা হামলায় নিহত হয়েছে ৫১০ ফিলিস্তিনি। দুই দেশের মোট ৫ হাজার মানুষ আহত হয়েছে। আল জাজিরা বলছে, গাজা থেকে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার বাসিন্দা। এখনো সংঘাত চলছে।

হামাসের হামলায় ৯ জন আমেরিকান ছাড়াও নেপালের ১০ জন ও থাইল্যান্ডের ১২ জন মারা গেছেন।  

আল জাজিরা বলছে, হামাসের হামলার জবাবে এবার রিফিউজি ক্যাম্পেও হামলা শুরু করেছে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী। বিমান হামলা থেকে রক্ষা পেতে এদিক–সেদিক ছুটছে সবাই। তবে তাদের যাওয়ার কোনো জায়গা নেই।

ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে চলমান সংঘাতে তৃতীয় পক্ষে যে কোনো সময় ঢুকে পড়তে পারে, এমন 'ঝুঁকি’ রয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া।