দৃঢ় প্রতিজ্ঞা

11th January, 2024
71




মানুষের মন এমনভাবে তৈরী যে সে যদি কোনভাবে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হয় কোনো কিছু করা নিয়ে, তাহলে শরীরের সব অঙ্গ প্রত্যঙ্গ গুলোও তার সঙ্গ দেয় দ্বিধাহীন ভাবে। তাই দরকার শুধু একটা দৃঢ় প্রতিজ্ঞার!


আরো নিবন্ধন পড়ুন



অনুভূতি-কবিতা-যন্ত্রণা Sunday, 02nd June, 2024

????অনুভূতির কবিতা - যন্ত্রণায় কিছু মন????

★অনুলিখন: মো: ইলিয়াস হোসেন 

তাসের ঘরের মত ভেঙে যাচ্ছে ভালোবাসায় গড়া ঘরগুলো, সম্পর্ক গুলো আজ ঠিক বালির বাঁধ ।

 

জীবন্ত স্বপ্ন গুলো জ্বলছে চিতায় দাউ দাউ করে, ধোঁয়া হয়ে উড়ছে আকাঙ্ক্ষা গুলো --

 

ঠাঁই নিচ্ছে মেঘের কোলে,  মেঘও ভুগছে বিষন্নতায়, 

 

তাই আকাঙ্ক্ষা গুলো কে ফিরিয়ে দিচ্ছে বেদনার ঝুলি হাতে ধরিয়ে । 

 

হাওয়ায় ভাসছে বিস্বাদময় যাতনা - চারিদিকে শুধু ভেঙে পড়ার শব্দ । 

 

কী ভাঙছে?  রাস্তার দু’পাশে বড় বড় অট্টালিকার কাঁচের জানালা গুলোর মত ভাঙছে সাজানো গোছানো মন । 

 

বিক্ষিপ্ত ভাবে ছড়িয়ে রয়েছে মাঝ রাস্তায় -- পা ফুটছে - কারো অজান্তে আবার কারো স্ব ইচ্ছায় ।রক্তে মাটি গা ধুচ্ছে -- তবুও সবাই হাঁটছে । 

 

হুঁশ নেই -- প্রেম নাকি বাঁচতে চাইছে সুরার ঘ্রাণে ।উনুন আজ পরিনত দাবানলে -- পুড়িয়ে দিচ্ছে সুরাকেও, সাথে সাথে জ্বলে পুড়ে খাক হয়ে যাচ্ছে প্রেম গুলো ।  

 

রজনীর স্টিকে কেরোসিনের গন্ধ, , পোকামাকড়ও আসতে ভয় পায় । 

 

কিন্তু অনায়াসে প্রবেশ করছে বিশ্বাস গুলো, সেই বিশ্বাস গুলো নিঃশ্বাসে যাচ্ছে আটকে ছাতুর দলার মতো । 

 

ছটফট করতে করতে একেবারে ঘুমিয়ে পড়ছে ।হাসিগুলো আজ অভিনয়, কান্না গুলো বাস্তব ।বিশ্বাস নেই, প্রেম নেই, ভালোবাসা নেই --

 

মন শুধু পুষে চলেছে একরাশ যন্ত্রণা 

মৃত্যুগুলো দোর গড়ায় সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড়িয়ে যন্ত্রণা গুলোকে এক এক করে বয়ে নিয়ে যাচ্ছে ।আর নীরব দর্শক হয়ে সেই মৃত্যুবহন দেখছে কঠিন এক শরীর ।

 

” আপনার সেই আবেগগুলি আপনাকে কষ্ট দেয় যেগুলি একান্তই আপনার মনে হয় ।” Monday, 12th February, 2024

আবেগি মন স্ট্যাটাস দিয়ে এই পোস্ট টি করা হয়েছে । আমাদের এই সাইটে হাজার হাজার বাংলা স্ট্যাটাস ও এসএমএস পাবেন । তবে এখানে কিছু কষ্টের স্ট্যাটাস বা আবেগি মন স্ট্যাটাস পাবেন । অনেকেই এই ধরনের স্ট্যাটাস অনেক লাইক করে । তাই আমরা এখানে কিছু সুন্দর সুন্দর স্ট্যাটাস দিয়েছি । আশাকরি আপনাদের কাছে এগুলো অনেক ভালো লাগবে । তো চলুন দেখা যাক সেই সেরা স্ট্যাটাস গুলোঃ

আবেগি মন স্ট্যাটাস :

” আপনার সেই আবেগগুলি আপনাকে কষ্ট দেয় যেগুলি একান্তই আপনার মনে হয় ।”

” প্রেম একটি শক্তিশালী আবেগ । প্রেম অন্য সব কিছুকে গুরুত্বহীন করে দেয়, কারণ অন্যসব আবেগ এত বেশী শক্তিশালী নয় ।”

” আপনি যখন কষ্ট পাবেন, তখন সেই কস্টকে প্রেরণায় রূপান্তরিত করার চেষ্টা করুন, হাল ছাড়ার কারণ হিসাবে নয়।”

” আমার ইচ্ছে হয় আমি তোমাকে ক্ষমা করে দেই, কিন্তু আমার আবেগ তা করতে দেয় না, কারণ তুমি সত্যিই অনেক বেশী কষ্ট দিয়েছো আমায় ।”

” তুমি হয়তো মরতে চাও, কিন্তু বাস্তব টা হলো তুমি নিজেকে সেভ করতে চাও ।”

” মরে যাওয়া কোন সমস্যার সমাধান নয়, বরং বেঁচে থেকে সমস্যা সমাধানের লড়াই করে যাওয়াই হলো জীবন ।”

মানুষের অনুভবের ভিত্তিতে তার বিবেচনার গাঢ়ত্ব বাড়ে- Friday, 17th November, 2023

সময়ের প্রভাবঃ

কিছু সময় আবছা বিষয়ের প্রতি অনুভবের গাঢ়ত্ব পরিলক্ষিত হয় অনেকের মধ্যে। যা কাউকে সরাসরি অনুভব প্রকাশ না করালেও বিষয়টার প্রভাব তাদের চোখে জলজল করতে থাকে। প্রকাশ্যে যেকোনো কিছুর প্রভাব লুকানো গেলেও অনুভবে অসম্ভব। আবার মানুষের কল্পনায় এমন অনেক কিছুই সম্ভব যা বাস্তবে অসম্ভব। সময় মানুষকে জীবনের সীমান্তে অভিজ্ঞতার চূড়ায় পৌঁছে দেয়। যা কাউকে সমর্পণের মাধ্যমে মানুষ তার জীবনের পূর্ণতা অর্জন করে। কিন্তু কোনো কিছু পেয়েও যদি তার ব্যবহার অনিশ্চিত থেকে যায় কারোর জীবনের প্রতি। তাহলে সময়ের সাথে জীবনের অনুভব কঠিন হতে থাকে সেই ব্যক্তিগুলোর কাছে। কারণ সে বিশেষ কিছু পেয়েও সঠিক মূল্যায়ন করতে পারেনি। তাই কোনো কিছু পেয়ে সময়ের সাথে তার গুরুত্ব বজায় রাখলে সবকিছু্ই সহজ।

কারোর জীবনের অনুভব তাকে সফল বা অসফল করে থাকে। তাই অনুভবেও বিবেচনার গুরুত্ব অপরিসীম। মানুষ যেমন বদলাতে জানে। তেমনি কোনো পরিস্থিতিতে নিজেকে ধরে রাখতেও জানে, যদি ব্যক্তিত্ব মজবুত আর বিবেচনা শক্তি প্রখর হয়। তাই কেউ জানে না যে, সময় কখন কাকে কোন পরিস্থিতিতে রাখবে। যেজন্য সময়ের সাথে সবাইকে বিবেচনার সাথে মানবিকতা বজায় রেখে চলা উচিত। যা তাকে সহজেই সামনের দিনের সমস্যার সমাধান দিবে। অনেকেই যেকোনো কিছু সময়ের সাথে তুলনা করতে থাকে। কিন্তু তারা জানে না যে, তুলনা কাউকে সবসময় একরকম রাখে। যার কারণে তার প্রতি পরিস্থিতিও একঘেয়েমি প্রকাশ করে। তাই যে কারোরই তুলনার জায়গায় মানায় নেওয়ার চেষ্টা করা উচিত। তাহলে একসময় হয়তো জীবনে জটিলের সরলতা খুঁজে পাবে।

প্রত্যেকে মানুষ হয়ে জন্মালেও অনেকের মধ্যে মনুষ্যত্ববোধ থাকে না। যার কারনে সেসব ব্যক্তি মানুষ হিসেবে জীবন-যাপন করলেও তাদের যেকোনো কিছুই অর্থহীন। যা কাউকে সমাপ্তিতেও অসম্পূর্ণ রাখে। অনেকের কোনো কিছুর প্রতি আকৃষ্টতা কাজ করলেও সময়ের প্রতি দুর্বলতা কাজ করতে থাকে। যা কারোর জীবন অতিবাহিত করলেও তাকে ভেতর থেকে কিছু বিষয়ে জড়তা অনুভব করায়। সময়ের সাথে বিষয়টা তাকে যেকোনো কিছুর থেকে দূরে রাখে, অনুভূতি হারানোর ভয়ে। অনেকের ভেতরে বোধ কম মানবিকতা বেশি। যেজন্য তারা না বুঝলেও সময়ের অনুভব করতে জানে। যা কারোর অবুঝ জীবনকেও সম্পূর্ণতা দান করে। সময়ের সাথে নিজের মধ্যে শান্তি তৈরি করা উচিত। কোনো কিছুর সীমাবদ্ধতা বজায় রাখার জন্য। যা কাউকে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ শেখায়।

অনেকের জীবনে শুরুর নিঃশেষে সবকিছু লুকিয়ে থাকে। যা কাউকে একবার পেতে শুরু করালে কোনো কিছুর অপূর্ণতা রাখে না। স্বার্থের জীবনের নিঃস্বার্থ কিছু না খুঁজে নিজের গতি তৈরি করা উচিত। যা কাউকে যেকোনো পরিবেশে মানানসই করে তোলে। তখন কোনো কিছুর মাঝেও নিজের মূল্য বজায় রাখতে সক্ষম হবে। সীমাবদ্ধতা কাউকে আটকায় না। প্রত্যেকের ভারসাম্য বজায় রাখে। যা অসীম কষ্টেও কাউকে নিস্তব্ধভাবে চলতে শেখায়। কেউ যখন নিজের দিক দিয়ে বিবেচনা করে, তখন মানুষ সুবিধাবাদী। আর যখন কেউ অন্যের দিক দিয়ে বিবেচনা করে, তখন মানুষ সুবিধাবাদী। বিষয়টা এক হলেও পার্থক্য ব্যক্তিভেদে চিন্তাধারার।

সময় মানুষকে ভাবনার মাঝেও শেখায়। কিন্তু নিজের পরিচালনা বিবেচনা দিয়েই করতে হয়। কষ্ট কাউকে মজবুত জীবন-যাপন করায়। কিন্তু মানবিকতা বজায় রাখলে জীবন প্রয়োজনের চেয়ে তুলনায় সুন্দর হয়।