মানবিক মূল্যবোধ মানুষের ভেতরের লক্ষণ নির্ধারণ করে থাকে-

14th December, 2023
432




মানুষের লক্ষণ পর্যবেক্ষণঃ

যখন কেউ ভেতর থেকে কোনো কিছুর প্রতি আকৃষ্ট হয়। তখন সেই বিষয়ের সামান্য আবির্ভাবও তাকে সম্পূর্ণরূপে গ্রাস করে। যেই মুহুর্তে হালকা পানি পান করলে তার ভেতর দিয়ে কম্পণ অনুভূত হয় সম্পূর্ণ শরীরে। আর ততক্ষণ পর্যন্ত বিষয়টা তার মধ্যে বিরাজ করে। যতক্ষণ না সে কোনো কিছুর মধ্যে নিজেকে ব্যস্ত করছে। যেকোনো কিছুই সাধারণ। কিন্তু যেকোনো কিছুর প্রতি মানুষের বিবেচনার পর্যবেক্ষণে বাড়তে থাকা মূল্যবোধ তাকে আলাদাভাবে কারোর সবকিছু নির্ধারণ করায়। যার কারণে কোন বিষয়টা তার জন্য সঠিক। আর কোন বিষয়টা তার জন্য ভুল। তা সহজেই যেকোনো মানুষ তার পর্যবেক্ষণে নির্ধারণ করে জীবনে সামান্য জায়গা দিয়ে থাকে। সময়ের সাথে অনুভবের জায়গা থেকে সেইসব বিষয়ের পরিধি বাড়ে বা নির্মূল হয়।

কিছু সময় কোনো ব্যক্তি হালকা কোনো কিছুর প্রতি এতটাই জরিয়ে যায়। যখন সামান্য অনুভবে যেকোনো কিছু থেকে তার ভাঙা-গড়ার গল্পের শুরু হয়। যা হয়তো কারোর জীবনের শেষ অবধি চলতে থাকে। একটা মানুষ শুরু থেকে কখনোই চাইবে না যে, তার জন্য কেউ সামান্য কষ্ট অনুভব করুক। কিন্তু যখন সে বুঝতে পারবে, প্রত্যেকের জন্য আত্মত্যাগে তার মূল্যবোধের বিসর্জন হতে পারে। তখন হয়তো সেইসব ব্যক্তি জীবনের কঠিন সত্যগুলোর সাথে পরিচিত হবে। যখন কারোর প্রতি মূল্যায়ন আর নিজের জন্য মূল্যবোধ কাজ করবে। মানুষ নতুনত্বে আকৃষ্ট। তবে পুরোনো কিছু ভুলে গিয়ে নয়। সবকিছুই মানুষের মধ্যে বিরাজ করে। শুধু সময় সবকিছুর পুনঃনির্ধারণ করে থাকে। যেজন্য মানুষ নিজের জায়গায় ঠিক থাকে। কিন্তু প্রত্যেকটা পরিস্থিতিতে খাপ খাওয়াতে সময়ের সাথে সবাইকেই একটু বদলাতে হয়।

অনেক সময় দেখা যায় যে, কিছু মানুষ কোনো পরিস্থিতিতে তাকে মানাতে পারবে কিনা চিন্তা না করে, তার জীবনে বিষয়টার স্থায়ীত্বের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে। যেই বিষয়টা শুরুর দিকে ছোট মনে হলেও সময়ের সাথে তার কঠিনত্বতা কারোর জীবনকে দুর্বিসহ করে তোলে। যখন বিষয়টা বুঝলেও পূর্ব নির্ধারিত সিদ্ধান্তের মতো চাপ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয় না। যখন সময়ের সাথে বিষয়টার জটিলতা বাড়তে থাকে। তখন অনুভবের ভার সময়ের সাথে কারোর জীবনের চাপ বাড়িয়ে থাকে। যেজন্য ব্যক্তিগুলোর মধ্যে হালকাভাবে তিক্ততা তৈরি হয়। যখন কেউ নিজের মধ্যে থেকেও নিজেকে অনুভব করতে ভুলে যায়। তাই সময় থাকতে যেকোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নিজের দিকটা বিবেচনা করা উচিত। যাতে সামান্য ভুলের মাধ্যমে অন্যের আর নিজের জীবনকে অর্থহীনতায় ভোগান্তির শিকার না হতে হয়।

সিদ্ধান্ত নেওয়া ভুল নয়। তবে ভবিষ্যতে প্রতি সিদ্ধান্তের প্রভাব পূর্বেই বিবেচনা করা উচিত। যাতে সামান্য ভুলের কারণে সারা জীবনের ভোগান্তির শিকার না হতে হয়।

রিলেটেড পোস্ট


জীবনের সান্নিধ্যে সবকিছুর নির্ধারিত মাত্রা বজায় রাখা উচিত-
পড়া হয়েছে: ৮৩৩ বার

মনঃস্তাত্বিক বিষয়গুলো যত্নের সহিত রাখা উচিত-
পড়া হয়েছে: ২৬৭ বার

চার দিনের ব্যবধানে ফের কমল সোনার দাম
পড়া হয়েছে: ১০২ বার

কিছু বিষয়ের উৎকৃষ্টতা মানুষকে অস্বাভাবিকভাবে গড়ে তোলে-
পড়া হয়েছে: ৪৪৩ বার

উপেক্ষাকৃত চিন্তার পরিপ্রেক্ষিতে সাময়িক মূল্যায়ন পর্যালোচনা-
পড়া হয়েছে: ৭৯৫ বার

নিজের প্রতি বিশ্বাসের আদ্রতা জীবনকে আলোকিত করে-
পড়া হয়েছে: ৩৪১ বার

নিখুঁত চিন্তার চেয়ে নিজেকে নির্ভুল রাখা উত্তম-
পড়া হয়েছে: ২৬৬ বার

আত্মপ্রকাশের অনুভবে স্মৃতির পাতায় গাঁথা ভেজা মুহুর্তগুলো-
পড়া হয়েছে: ৪৩৬ বার

মজবুত মূল্যবোধ তৈরি করতে চিন্তাশক্তির প্রভাব-
পড়া হয়েছে: ২৫২ বার

বিব্রতকর পরিস্থিতির অনাকাঙ্খিত চিন্তার প্রভাব-
পড়া হয়েছে: ২৮৩ বার


আরো নিবন্ধন পড়ুন



#responsibility Saturday, 06th January, 2024

Title: দায়িত্ব - আমাদের আলোকমুক্ত পথে

 

জীবনে সবাই এক সময়ে অনুভব করেছি, আমাদের দায়িত্বের গুরুত্ব। এটি একটি জটিল শব্দ, তবে এটি আমাদের জীবনে একটি অমূল্য মূল্য। দায়িত্ব হলো তার নিজের কাজ এবং আদর্শগুলির জন্য অবমাননা ছাড়াই কাজ করা।

 

দায়িত্ব নেওয়ার সাথে সাথে আমরা নিজেকে একটি শক্তিশালী ও দৃঢ় ব্যক্তি হিসেবে পুনর্নির্মাণ করতে পারি। এটি অনেকটা একটি বৃষ্টির মত, যা আসলে সৃষ্টি করে এবং সব কিছুকে তার পথে সাজায়। দায়িত্ববান হতে মানতে হয় যে, আমাদের নিজেকে আমাদের প্রতি এবং আমাদের সমাজে দায়িত্বশীলভাবে উপস্থাপন করতে হয়।

 

আমরা কখনও ওই সময়গুলি পাবো না, যখন সব কিছু সুস্থ এবং সহজ থাকবে, তবে দায়িত্ব হলো এমন একটি আলো যা সব অন্ধকারে আলোকিত করতে সক্ষম। এটি আমাদেরকে শক্তি এবং সাহস দেয় যেন আমরা সব বিপর্যয়ে উত্তরণ করতে পারি, যখন সবচেয়ে প্রয়োজন।

 

দায়িত্ব নেওয়ার আমাদের প্রতি একটি দারুণ দারুণ সুযোগ আছে আমাদের সমাজে এবং পরিবারে। এটি আমাদের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে, আমাদের নিজেদের সাথে একত্রিত করে এবং একটি সামর্থ্যশালী সমাজ গড়ে তোলে। যখন আমরা অপার্থিব দায়িত্ব নিয়ে যাই, তখন আমরা স্বয়ংক্রিয়াশীল এবং অগ্রগতির দিকে মুখরুপ হয়।

 

দায়িত্বশীল জীবনের পথে চলতে, আমরা সবাইকে আমাদের প্রতিটি কর্মে সতর্ক থাকতে হবে, অন্যের প্রতি ভালোবাসা ও আদরের সাথে অবদান করতে হবে। আমরা সবাই এক সময়ে অল্প হয়ে থাকব, তবে আমাদের কাজের মাধ্যমে আমরা চিরকাল পর্যালোচনার মধ্যে থাকবো

????কিছু আরবি শব্দের বাংলা অর্থ : আসুন আমরা জেনে নি ???? Sunday, 07th January, 2024


 
১. #বিসমিল্লাহ (بِسْمِ اللّهِ)
বিসমিল্লাহ অর্থ: আল্লাহর নামে শুরু।
তাৎপর্য: আল্লাহর বারাকাহ ও নিরাপত্তা অর্জন।    

২. #আলহামদুলিল্লাহ (الْحَمْدُ لِلّٰهِ)
আলহামদুলিল্লাহ অর্থ: সকল প্রশংসা আল্লাহর।
তাৎপর্য: আল্লাহর প্রশংসা ও শুকরিয়া আদায় করা।        

৩. #সুবহানাল্লাহ (سُبْحَانَ اللّٰهِ)
সুবহানাল্লাহ অর্থ: আল্লাহ পবিত্র।
তাৎপর্য: মহান আল্লাহর পবিত্রতা ঘোষণা করা।       

৪. #আল্লাহু_আকবার (اللّٰهُ أَكْبَرُ) 
আল্লাহু আকবার অর্থ: আল্লাহ সবচেয়ে বড়।
তাৎপর্য: আল্লাহর বড়ত্ব ঘোষণা ও সবকিছুর উপরে আল্লাহকে স্থান দেয়া।       

৫. #লা_ইলাহা_ইল্লাল্লাহ (لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللّٰه)
লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ অর্থ: আল্লাহ ছাড়া কোন ইলাহ (মাবুদ) নেই।   
তাৎপর্য: আল্লাহর এককত্ব ঘোষণা করা এবং তার সাথে অন্য কাউকে শরীক না করা।       

৬. #জাজাকাল্লাহু_খাইরান   
(ﺟَﺰَﺍﻙَ ﺍﻟﻠّٓﻪُ ﺧَﻴْﺮًﺍ)
জাযাকাল্লাহু খাইরান অর্থ: আল্লাহ আপনাকে উত্তম প্রতিদান দিন।       
তাৎপর্য: অন্যের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা।

৭. #মাশাআল্লাহ (ما شاء الله)
মাশাআল্লাহ অর্থ: আল্লাহ যেমন চেয়েছেন।
 তাৎপর্য: আল্লাহর প্রশংসা করা। 

৮. #ইনশাআল্লাহ (ان شاء الله)
ইনশাআল্লাহ অর্থ: যদি আল্লাহ চান।
তাৎপর্য: আল্লাহর উপর ভরসা কর। 

৯. #আস্তাগফিরুল্লাহ (ﺃﺳﺘﻐﻔﺮ ﺍﻟﻠﻪ)
আস্তাগফিরুল্লাহ অর্থ: আমি আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাই।
তাৎপর্য: আল্লাহর নিকট ক্ষমা চাওয়া ও তাওবাহ করা।  

১০.  #ফি_আমানিল্লাহ্ (في أمان الله)
ফি আমানিল্লাহ অর্থ: আল্লাহর নিরাপত্তায় সোপর্দ করলাম।
তাৎপর্য: আল্লাহর নিকট নিরাপত্তা চাওয়া, ভরসা করা।

১১. #নাউযুবিল্লাহ (نعوذ بالله)
নাউজুবিল্লাহ অর্থ: আল্লাহর কাছে এথেকে আশ্রয় চাই।
তাৎপর্য: মন্দ কিছু শুনলে কিংবা দেখলে এথেকে আশ্রয় প্রার্থনা করা।

১২. #লা_হাওলা_ওয়ালা_কুওয়াতা_ইল্লা_বিল্লাহ  
(لَا حَوْلَ وَلَا قُوَّةَ إِلَّا بِاللَّهِ)
অর্থ: আল্লাহর সাহায্য ও সহায়তা ব্যতীত আর কোন আশ্রয় ও সাহায্য নেই।
তাৎপর্য: আল্লাহর এককত্ব ও বড়ত্ব প্রকাশ।  

১৩. #ইন্নালিল্লাহি_ওয়া_ইন্না_ইলাইহি_র_জিউন 
(إِنَّا لِلّهِ وَإِنَّـا إِلَيْهِ رَاجِعونَ) 
অর্থ: নিশ্চয়ই আমরা মহান আল্লাহর জন্য এবং আমরা তার দিকেই ফিরে যাবো। 
তাৎপর্য: মৃত্যু ও পরকালের স্মরণ।

১৪. #সুবহানাল্লাহি_ওয়া_বিহামদিহি  
(سُبْحَانَ اللَّهِ وَبِحَمْدِه)
অর্থ: মহাপবিত্র আল্লাহ এবং সকল প্রশংসা তাঁর জন্য।
তাৎপর্য: আল্লাহর পবিত্রতা ও প্রশংসা ঘোষণা করা। 

১৫. #সুবহানাল্লাহিল_আযীম 
(سبحان الله العظيم)
অর্থ: মহপবিত্র আল্লাহ, যিনি মহান।
তাৎপর্য: আল্লাহর পবিত্রতা ও বড়ত্ব ঘোষণা।

 Alhamdulillah

মূল্য Saturday, 06th January, 2024

সম্মানের সাথে সদ্য স্মাতক হওয়া মেয়েকে ভাল একটা উপহার দেয়ার জন্য বাবা মেয়েকে নিয়ে গ্যেরেজে গেলেন।

 

বললেন,“এখানের এই গাড়িটা অনেক বছর আগে আমি নিয়েছিলাম। এখন এর অনেক বয়স হয়ে গেছে। তোমার খুশীর এই মুহূর্তে এটা আমি তোমাকে উপহার হিসেবে দিতে চাই। তবে তার আগে তুমি এটা বিক্রির জন্য ব্যবহার করা গাড়ির শোরুমে যাও এবং দেখ তারা তোমাকে কত অফার করে।”

 

মেয়ে ব্যবহৃত গাড়ির শোরুম থেকে বাবার কাছে ফিরে এসে বলল, ′′ তারা আমাকে এক হাজার ডলার অফার করেছে কারণ এটি দেখতে খুব জরাজীর্ণ।”

 

বাবা বললেন, “এবার এটা ভাঙ্গারি দোকানে নিয়ে যাও, দেখ ওরা কি বলে!”

 

মেয়ে ভাঙ্গারি দোকান থেকে ফিরে এসে বলল, “এটা অনেক পুরনো গাড়ি বলে এখানে মাত্র ১০০ ডলার অফার করেছে।′′

বাবা তখণ একটা গাড়ির ক্লাবে গিয়ে গাড়িটা দেখাতে বললেন। মেয়ে গাড়িটি ক্লাবে নিয়ে গেল এবং ফিরে এসে খুশিতে তার বাবাকে বলল, "ক্লাবে কিছু লোক খুবই কৌতূহল ভাবে গাড়িটি পর্যবেক্ষণ করলো এবং এর জন্য এক লক্ষ্ ডলার অফার করেছে। যেহেতু এটি একটি Nissan Skyline R34, একটি আইকনিক গাড়ি।"

 

তখন বাবা তাঁর মেয়েকে বললেন, "সঠিক জায়গার সঠিক লোক তোমাকে সঠিক ভাবেই মূল্যায়ন করবে। আর যদি কোথাও তোমাকে মূল্য না দেওয়া হয়, তবে রাগ করবেনা। বুঝে নিবে এর মানে তুমি ভুল জায়গায় আছো। তারাই তোমার মূল্য দিবে, যাদের নিজেদের মূল্যবোধ আছে, গুনের মর্ম উপলব্ধি করার মত যোগ্যতা আছে। এমন জায়গায় কখনো থেকো না যেখানে তোমার মূল্য কেউ দেখে না।”

নাজমূল হোসাইন